• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮
Bangla Bazaar
Bongosoft Ltd.

সাজানো ইনিংসের অকালমৃত্যু


সুলাইমান কবীর | বাংলাবাজার প্রকাশিত: মে ১, ২০২১, ০৯:১৯ পিএম সাজানো ইনিংসের অকালমৃত্যু
ছবি: সংগৃহীত

তামিম-সাইফের দুর্দান্ত সূচনা।মুমিনুল-মুশফিকরাও ব্যাট হাতে ছিলেন দুর্দান্ত।কিন্তু শ্রীলঙ্কার অভিষিক্ত স্পিনার জয়াবিক্রমার ঘূর্ণিতে নাকাল বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ।তাই দারুণ শুরুর পরেও ২৫১ রানে থেমেছে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। 

শ্রীলঙ্কার সামনে সুযোগ ছিলো বাংলাদেশকে ফলোঅন করা।কিন্তু তা করেনি শ্রীলঙ্কা।২৪২ রানে এগিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করার পর তৃতীয় দিন শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ১৭ রান করেছে স্বাগতিকরা।ফলে তাদের লিড দাঁড়িয়েছে ২৫৯ রানে।

তৃতীয় দিন ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ৪৯৩ রান করে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা। বিপরীতে নিজেদের প্রথম ইনিংসে দারুন সূচনা করেন তামিম ইকবাল এবং সাইফ হাসান।ওয়ানডে স্টাইলে খেলে ক্যারিয়ারে নিজের ৩১তম অর্ধশত পূর্ণ করেন তামিম। অপরপ্রান্তে ২৫ করে আউট হন সাইফ হাসান।

ওয়ান ডাউনে নেমে উইকেটে থিতু হওয়ার আগেই আবারো ডাক মারেন নাজমুল হোসেন শান্ত।প্রথম টেস্টের ২য় ইনিংসেও শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন তিনি।শান্তর বিদায়ে ক্রিজে আসা মুমিনুল হক নিয়ে ভালোই খেলছিলেন তামিম। দুজন মিলে গড়েন ৫২ রানের জুটি।সেঞ্চুরির দিকেই এগোচ্ছিলেন তামিম। কিন্তু এবারো ব্যর্থ হন। টানা চার ইনিংসে ফিফটির দেখা পাওয়ার পর সেঞ্চুরি পূর্ণ করতে পারলেন না। ফিরেছেন ৯২ রানে।

চতুর্থ উইকেট জুটি মুশফিক-মুমিনুল মিলে তোলেন ৬৩ রান। সেখানে মুশফিকের ব্যাট থেকেই এসেছে ৪০ রান।এছাড়া অধিনায়ক মমিনুল হক করেন  ৪৯। শেষদিকে আর কেউ প্রতিরোধ গড়তে পারেনি শ্রীলঙ্কান বলারদের সামনে।শেষ ৩৭ রানে সাত উইকেট হারিয়ে ২৫১ রানে থামে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস।

শেষ বিকালে নিজেদের ২য় ইনিংসে ব্যাটিং এ নামে শ্রীলঙ্কা।দিনশেষে তাদের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১৭ রান।বাংলাদেশের চেয়ে তারা ২৫৯ রানে এগিয়ে থেকে আগামীকাল ব্যাটিং করতে নামবে তারা।

উল্লেখ্য বৃহস্পতিবার টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। ব্যাট করতে নেমে লাহিরু থিরিমান্নের ১৪০, দিমুথ করুনারত্নের ১১৮, ওসাদা ফার্নান্দোর ৮১ এবং নিরোশান দিকভেলার অপরাজিত ৭৭ রানের ইনিংসের সুবাদে ৭ উইকেটে ৪৯৩ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে লঙ্কানরা।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নেন তাসকিন আহমেদ। এছাড়া একটি করে উইকেট পেয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম এবং শরিফুল ইসলাম।