• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮
Bangla Bazaar
Bongosoft Ltd.

সামনে দাঁড়িয়ে ঝগড়া করলেন তুরস্ক-গ্রিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী


আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলাবাজার প্রকাশিত: এপ্রিল ১৭, ২০২১, ০৭:৩৩ পিএম সামনে দাঁড়িয়ে ঝগড়া করলেন তুরস্ক-গ্রিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী
ছবি: সংগৃহীত

চলমান উত্তেজনা কমাতে আঙ্কারায় বৈঠকে বসেছিলেন তুরস্ক এবং গ্রিসের দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। শুরুটা কিছুক্ষণ ভালোই  ছিল। কিন্তু বেশিক্ষণ তা স্থায়ী হয়নি। একে অপরকে প্রকাশ্যেই একে অপরকে দোষারোপ করেছেন দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী। 

জার্মান গণমাধ্যম ডয়েচে ভেলে জানায়, বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতে দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীই সৌহার্দ্যের বাতাবরণ বজায় রেখেছিলেন। 

গোলমাল শুরু হয় গ্রিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিকোস ডেন্ডিয়াসের অভিযোগের পর থেকেই। তার অভিযোগ ছিল, তুরস্কের প্লেন অনেকবার গ্রিসের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে। তিনি বলেন, তুরস্ক যেন ফেক নিউজ না ছড়ায়। গ্রিসের সার্বভৌমত্বে আঘাত করার চেষ্টা হলে তুরস্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে বলে হুমকি দেন তিনি।

তখন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত বলেন, আপনি আ বলছেন তা অনভিপ্রেত। আপনি এখানে এসে তুরস্ককে দোষারোপ করে আপনার দেশকে একটা বার্তা দিতে চাচ্ছেন। যা আমি মেনে নিতে পারি না। 

গ্রিস ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনা কমানো ও পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার লক্ষ্যে তুরস্কের আঙ্কারায় প্রায় এক বছর পর বৈঠকে বসেছিল দুই দেশ। এমন ঘটনার পর কিন্তু সেই লক্ষ্যপূরণ হলো না।

দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে তুরস্ক ও গ্রিসের মধ্যে। মূলত সমুদ্র থেকে তেল ও গ্যাস তোলা এবং সাইপ্রাস হলো বিরোধের মূল বিষয়। কিছুদিন আগে গ্রিস তেল ও গ্যাস তোলার চেষ্টা করলে তুরস্কও তাদের গ্যাস অনুসন্ধানকারী জাহাজ পাঠিয়ে দেয়। উত্তেজনা বাড়ে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) গ্রিসকেই সমর্থন করেছে। তারা তুরস্ককে গ্যাস অনুসন্ধানকারী জাহাজ ফিরিয়ে নিতে বলে। তুরস্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করা নিয়েও কথা হয়। গ্রিসের সমর্থনে কয়েকটি দেশ জাহাজও পাঠায়। এ পরিস্থিতিতে তুরস্ক তাদের তেল অনুসন্ধানকারী জাহাজ সরিয়ে নিয়েছে। পরে ইইউ-ও তুরস্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারির প্রস্তাব স্থগিত রেখেছে।