• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮
Bangla Bazaar
Bongosoft Ltd.

কুকুর-ইঁদুরের প্রস্রাবে ছড়াচ্ছে ভয়াবহ রোগ! সতর্কতা জারি


আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলাবাজার প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১, ১২:৫৮ পিএম কুকুর-ইঁদুরের প্রস্রাবে ছড়াচ্ছে ভয়াবহ রোগ! সতর্কতা জারি
ফাইল ছবি

করোনার সংক্রমণের মধ্যেই ভয় ধরাচ্ছে নতুন এক রোগ। কুকুর ও ইঁদুরের প্রস্রাব থেকে ছড়িয়ে পড়ছে লেপটোস্পাইরোসিস নামের রোগটি; যা নিয়ে বাড়ছে উদ্বেগ।

সম্প্রতি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিয়ে সতর্কতা জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ প্রতিদিন।

ভরা ভাদ্রেও অঝোরে বৃষ্টি। রাস্তায় জমে জল। সেই জল পেরিয়ে বাড়িতে ঢুকেই বিপত্তি! অসাড় হয়ে গেছে পায়ের পেশি, চোখ টকটকে লাল, ঘাড় এতটুকু নড়াচড়া করছে না। শরীরে কী তবে লেপটোস্পাইরোসিস?

পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, রাস্তায় জমা জলেই মিশে আছে কুকুর কিম্বা ইঁদুরের প্রস্রাব। আর মানুষের শরীরে প্রবেশ করে বাঁধাচ্ছে মরণ অসুখ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আরও বলছে, কুকুর-ইঁদুর কিংবা গবাদি পশুর শরীরে এক ধরনের স্পাইরাল ব্যাকটেরিয়া দেখা দিয়েছে। যা প্রস্রাবের মাধ্যমে ছড়ায়। এটি শরীরে লাগলেই বিপদ। বিশেষ করে বর্ষায় ও বর্ষা পরবর্তী স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় এই রোগ বেশি ছড়ায়। শরীরে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশের পর উপসর্গ দেখা দিতে ৫ থেকে ১৪ দিন সময় লাগে।


কোনও কোনও সময় এক মাস পরেও অসুখ দেখা দিতে পারে। যেটা একজন মানুষকে মৃত্যু পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারে। এই রোগের উপসর্গ হলো- চোখ লাল হওয়া, ঘাড় ‘স্টিফ’বা শক্ত হয়ে যাওয়া, কোনও কারণ ছাড়াই হঠাৎ জন্ডিস ও তলপেটে ব্যথা। এসব উপসর্গ দেখা দিলেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বলা হয়ছে।

পরামর্শে আরও বলা হয়েছে, যারা নালা পরিষ্কার করেন তাদেরই সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তাই যাদের নোংরায় কাজ করতে হয় এমন পেশার লোকদের গ্লাভস এবং পায়ে জুতো পরে কাজ করতে বলা হয়েছে।