• ঢাকা
  • শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮
Bangla Bazaar
Bongosoft Ltd.
দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারের ১৫ পদক্ষেপ

পিয়াজের শুল্ক প্রত্যাহারে এনবিআরকে অনুরোধ


নিজস্ব প্রতিবেদক | বাংলাবাজার প্রকাশিত: অক্টোবর ১১, ২০২১, ০২:২৭ পিএম পিয়াজের শুল্ক প্রত্যাহারে এনবিআরকে অনুরোধ
ছবি: সংগৃহীত

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে ১৫টি পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। এছাড়া অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পিয়াজের শুল্ক প্রত্যাহার ও অপরিশোধিত তেল, চিনির শুল্ক কমানোর জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ড-এনবিআরকে অনুরোধ করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। 

আজ দুপুরে সচিবালয়ে এক সভায় এ তথ্য জানানো হয়। সভায় বলা হয়েছে, সম্প্রতি অত্যাবশ্যকীয় কয়েকটি পণ্য (ভোজ্যতেল চিনি, পিয়াজ ও মশুর ডাল) এর আন্তর্জাতিক মূল্যের প্রভাবে স্থানীয় বাজারে উচ্চমূল্য পরিলক্ষিত হওয়ায় নিত্যপ্রয়োজনীয় এ সকল পণ্যের মজুদ, সরবরাহ, আমদানি, মূল্য পরিস্থিতি স্বাভাবিক এবং স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ১৫টি পদক্ষেপ নিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে-

১. আমদানিকৃত পিয়াজের কোয়ারেন্টিন পরীক্ষা দ্রুত সম্পন্ন করে আইপি ইস্যুকরণের জন্য কৃষি মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়েছে।

২. পিয়াজের বর্তমান মজুদের তথ্য পিয়াজ উৎপাদনকারী ৯টি প্রধান জেলা (পাবনা, ফরিদপুর, রাজবাড়ি, রাজশাহী, কুষ্টিয়া, নওগাঁ, মাদারীপুর, শরীয়তপুর, নাটোর) হতে জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

৩. আমদানিকৃত পিয়াজ পরিবহনকারী ট্রাকসমূহকে ফেরি পারাপারে অগ্রাধিকার প্রদানের জন্য নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) কে অনুরোধ করা হয়েছে।

৪. সীমান্তবর্তী এলাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য আমদানিকৃত পিয়াজ পরিবহনকারী ট্রাক চলাচলে যাতে জটলা সৃষ্টি না হয়। অর্থাৎ ট্রাক চলাচল নির্বিঘ্নকরণের জন্য বাংলাদেশ স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষ-এর চেয়ারম্যানকে অনুরোধ করা হয়েছে। 

৫. সীমান্তবর্তী এলাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য আমদানিকৃত পিয়াজ পরিবহনকারী ট্রাক চলাচল নির্বিঘ্নকরণের জন্য সীমান্তবর্তী ৮টি জেলার (কক্সবাজার, সাতক্ষীরা, যঙ্গের, রাজশাহী, চাপাইনবাবগঞ্জ, দিনাজপুর, পঞ্চগড়, লালমনিরহাট) জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটদের অনুরোধ করা হয়েছে।

৬. বর্তমানে জনস্বার্থে পিয়াজের শুল্ক প্রত্যাহার এবং অপরিশোধিত সয়াবিন, অপরিশোধিত পাম ও অপরিশোধিত চিনির শুল্ক

হ্রাসের জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিদার)-কে অনুরোধ করা হয়েছে।

৭. পিয়াজের বর্তমান মজুতের তথ্য ৯ টি প্রধান জেলা (পাবনা, ফরিদপুর, রাজবাড়ি, রাজশাহী, কুষ্টিয়া, নওগা, মাদারীপুর, শরিয়তপুর, নাটোর) হতে জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে নিয়মিত সংগ্রহ করার জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের দায়িত্ব প্রদান করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

৮. বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে নিয়মিত প্রতিদিন দুইটি টিম ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ বাজার মনটরিং করা হয়।

৯. সারাদেশে জেলা-উপজেলায় জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নেতৃত্বে এবং ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সহায়তার বাজার মনিটরিং অব্যাহত রয়েছে।

১০. বিগত বছরের অভিজ্ঞতার আলোকে ও সর্বোপরি পিয়াজের বাজার স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে টিসিবির মাধ্যমে সেপ্টেম্বর ২০২১ মাসে পিয়াজ বিক্রয়ের কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়।

১১. টিসিবি সেপ্টেম্বর ২০২১ মাস হতে প্রতিদিন (মাসে ২০-২৫ দিন) সারাদেশে ৪০০ ট্রাকে ৪০০-১,০০০ কেজি পেঁয়াজ বিক্রির কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রয়োজনে ট্রাক প্রতি পিয়াজ বরাদ্দের পরিমাণ বৃদ্ধি করা হবে। এছাড়া, পিয়াজের সঙ্গে অন্যান্য পণ্য (চিনি, সয়াবিন তেল ও মশুর ডালা নিয়মিত বিক্রয় করা হচ্ছে।

১২. টিসিবি ঢাকাতে ৮০-১৫টি ট্রাকের মাধ্যমে টাকসেন নিয়মিত কার্যক্রম চালাচ্ছে।

১৩. টিসিবির মাধ্যমে ভারত ও তুরস্ক হতে ১৫,০০০ মেঃ টন পিয়াজ ইতোমধ্যে সংগ্রহ করা হয়েছে।

যা হতে বর্তমানে বিক্রয় কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। প্রকৃত আরো পেঁয়াজ সংগ্রহের জন্য পাইপ লাইনে রয়েছে।

১৪. এছাড়া বাজার দর বিবেচনায় টিসিবির মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পরিমাণ পেঁয়াজ ক্রয় কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

১৫. বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশন স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজার পর্যবেক্ষণ করছে সেইসাথে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশক্রমে ভারত ব্যতীত পিয়াজের বিকল্প উৎস খোঁজার কার্যক্রম পরিচালনা করছে।